১৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
সিদ্ধিরগঞ্জে যে কাউন্সিলরা জয়ের হ্যাটট্রিক করেছেন যশোরের শার্শায় ইজিবাইক চালককে হত্যা করে বাইক ছিনতাই রাজাকার-স্বাধীনতাবিরোধীদের তালিকাসহ নতুন পেট্রোবাংলা আইন আসছে ইসি গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে চার প্রস্তাব দিলো আ’লীগ না‌রায়ণগঞ্জ সি‌টি নির্বাচন- ঐক‌্যবদ্ধ ১৮নং ওয়ার্ডবাসী নির্বা‌চিত কর‌লো মুন্না‌কে, নেপ‌থ্যে লাভলু-রানা না’গঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বিজয়ী মেয়র ডাঃ সেলিনা হায়াত আইভীকে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদের উষ্ণ অভিনন্দন বেনাপোল বন্দরে আমদানিকৃত পন্যবাহী ট্রাক থেকে হেলপারের লাশ উদ্ধার নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা ২৭টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর আগামী পাঁচ বছরের জন্য যারা নেতৃত্ব দিবেন নাসিক নির্বাচনে তৃতীয় বারের মত আইভী জয়ী
  • প্রচ্ছদ
  • অপরাধ >> ছবি ঘর >> টপ নিউজ >> ঢাকা >> দেশজুড়ে >> লিড
  • সাবেক কাউন্সিলর ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে ডজনখানেক অভিযোগ
  • সাবেক কাউন্সিলর ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে ডজনখানেক অভিযোগ

    নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ১ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী ও সাবেক কাউন্সিলর ওমর ফারুকের বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে একাধিক লিখিত অভিযোগ ও সম্পদের পাহাড় গড়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মাত্র কয়েক বছরের ব্যবধানে তিনি ডজনখানেক বহুতল ভবন, জমি-জায়গা ও অঢেল সম্পদের মালিক হয়েছেন এ কাউন্সিলর।পাঁচ বছরে কাউন্সিলর ফারুক কিভাবে প্রায় দুই শ কোটি টাকার মালিক হয়েছেন তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে এলাকাবাসী।

    স্থানীয়রা বলছেন, কাউন্সিলর হয়ে ওমর ফারুক যেন আলাদিনের চেরাগ হাতে পেয়েছেন। অসহায় মানুষের জমি দখল, বিচার সালিসির নামে ব্যবসা করেছেন তিনি। এলাকায় বাড়ি নির্মাণ করতে গেলে ইট-বালু সিমেন্ট থেকে শুরু করে যাবতীয় কাজ তার লোকদের দিতে হয়। অন্যথায় হামলা, মামলাসহ গুনতে হয় বড় অঙ্কের চাঁদা।

    অনুসন্ধানে জানা গেছে, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ১ নম্বর ওয়ার্ডের পাইনাদি নতুন মহল্লা এলাকায় তিন শতাংশ জমিতে ছয় তলা ভবন রয়েছে, যার আনুমানিক মূল্য তিন কোটি টাকা। একই এলাকায় বদরুজ্জামান, মনির হোসেন ও শাহজামালের মালিকানাধীন দুই কাঠা জমি কৌশলে কম দামে ক্রয় করে দুই তলা ভবন নির্মাণ করছেন ওমর ফরুক, যার আনুমানিক মূল্য দুই কোটি টাকা। পাইনাদি আবদুল লতিফ মসজিদের পাশে সাড়ে পাঁচ কাঠা জমি। যার আনুমানিক মূল্য তিন কোটি টাকা।এই জমি দখল করতে গিয়ে জমির মালিক দাবিদার মৃত আব্দুল আউয়ালের ছেলে মাছুম মিয়াকে মারধর করেন কাউন্সিলরের লোকজন। একই এলাকায় সামসুদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে দশ কাঠার একটি প্লট রয়েছে ওমর ফরুকের, যার আনুমানিক মূল্য চার কোটি টাকা।

    ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংক সংলগ্ন দশ কাঠা জমি রয়েছে। যার আনুমানিক মূল্য পাঁচ কোটি টাকা। এ ছাড়া আরো অনেক জায়গায় জমি রয়েছে তার। অনেক জমি দখলের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। দুবাই ও মালয়েশিয়ায় রয়েছে কাউন্সিলর ফারুকের বিভিন্ন ব্যবসা-বাণিজ্য।

    এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কাউন্সিলর পদপ্রার্থী ওমর ফারুকের সহযোগী আক্তার হোসেন, তারেক মিয়া, সোহরাব হোসেন বাবুল, নুর হাবিব, জাহাঙ্গীর হোসেন, রুবেল মিয়া, মাদক ব্যবসায়ী আক্তার হোসেন, সজিব, তারেক রহমানসহ প্রায় ২০-২৫ জনের একটি শক্তিশালী বাহিনী পুরো এলাকা নিয়ন্ত্রণ করছে।

    পাইনাদি এলাকার বাসিন্দা আবুল বাসার পাটোয়ারী জানান, বাড়ি নির্মাণ করার সময় আমার কাছ থেকে দেড় লাখ টাকা আদায় করেন কাউন্সিলর ও তার লোকজন।এছাড়া পাইনাদি মধ্যপাড়া বাসিন্দা বলেন, এলাকাবাসি টাকা দেয়নি বলে ও তার সহযোগী সজিবের বাড়ি ভাঙ্গা যায় বলে সাবেক কাউন্সিলর ওমর ফারুক এই রাস্তাটি করেনি।

    অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী ও যুবলীগ নেতা ওমর ফারুক জানান, নির্বাচন সামনে রেখে প্রতিপক্ষের লোকেরা আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। কিভাবে এসব সম্পদের মালিক হয়েছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, বেশির ভাগ সম্পদই আমার বাপদাদার আমলের। আমি কোনো দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত নই।

    সূত্র : কালের কন্ঠ

    আরও পড়ুন