৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
খুলনা জেলা ডিবি পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবা ও গাঁজাসহ গ্রেফতার দুই ভোরের দর্পণের সার্কুলেশন ম্যানেজার ইখতিয়ার হোসেনের মা আর নেই বরিশাল নগরীতে মাদক ও সন্ত্রাসী মনির বাহিনীর হামলায় বাবা ও ছেলে আহত গাজীপুরের অন্তসত্ত্বা নারীর উপর সন্ত্রাসী হামলার মুন্সীগঞ্জে গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ: দুই সন্তানের পর দগ্ধ পিতার মৃত্যু দ.আফ্রিকায় ১ দিনেই ওমিক্রনে আক্রান্ত ১৬ হাজার কুড়িগ্রাম জেলা কৃষক দলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ সড়কের অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে লাল কার্ড নিয়ে আবারও আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা নীলফামারীর জঙ্গি আস্তানা থেকে দুই নারীসহ পাঁচজন আটক চিরিরবন্দর উপজেলায় আসন্ন ৫ম ধাপের ইউপি নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেলেন যারা
  • প্রচ্ছদ
  • অন্যান্য >> অপরাধ >> চাকরি >> ছবি ঘর >> টপ নিউজ
  • চাকরি দেওয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিতেন তিন জন
  • চাকরি দেওয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নিতেন তিন জন

    নারায়ণগঞ্জে চাকরি দেওয়ার নামে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে তিন জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (১২ অক্টোবর) সিদ্ধিরগঞ্জের সাহেবপাড়া ও নগরীর চাষাড়া তোলারাম কলেজরোড এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

    বুধবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে র‍্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেফট্যানেন্ট কর্নেল তানভীর মাহমুদ পাশার স্বাক্ষরিত এক প্রেস রিলিজে এ তথ্য জানান।

    গ্রেফতারকৃতরা হলো—এনআরএস ফোর্স সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম (৩১), এমডি মো. সাইফুল ইসলাম (২৮) এবং এমআরএম ফোর্সেস সিকিউরিটি সার্ভিস লিমিটেডের চেয়ারম্যান মো. রায়হান (৩০)।

    এ সময় তাদের কাছ থেকে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ভিজিটিং কার্ড, চাকরি প্রত্যাশীদের ভর্তি ফরম, সিল, অফিস শর্তাবলীর অঙ্গীকারনামা, সিকিউরিটি ইউনিফর্ম ও আয়-ব্যয়ের রেজিস্টার, এটিএম কার্ড, টাকার রশিদ জব্দ করা হয়। সেই সঙ্গে চাকরি প্রত্যাশী আট জন ভুক্তভোগীকে উদ্ধার করা হয়েছে।

    র‍্যাব-১১ এর অধিনায়ক তানভীর মাহমুদ পাশা জানান, প্রতিষ্ঠান দুটি দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লোভনীয় বেতনে চাকরির বিজ্ঞাপন দিয়ে প্রতারণা করে আসছিল। বিভিন্ন কোম্পানিতে লোক নিয়োগের প্রলোভন দেখিয়ে প্রত্যেকের কাছ থেকে রেজিস্ট্রেশন ও মেডিক্যাল ফিসহ জনপ্রতি প্রায় সাত থেকে ১৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নিতো। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সিকিউরিটি গার্ড, প্রজেক্ট হেলপার, মার্কেটিং ম্যানেজার, ইলেকট্রিশিয়ান, ওয়েল্ডার, রড মিস্ত্রি ও রাজমিস্ত্রি প্রভৃতি পদে ১০ থেকে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত বেতনের প্রলোভন দেখিয়ে চাকরি প্রত্যাশীদের প্রলুব্ধ করতো।

    প্রতিষ্ঠান দুটি নারায়ণগঞ্জের সাহেবপাড়া ও চাষাড়া এলাকায় সুসজ্জিত অফিস ভাড়া নিয়ে বিভিন্ন বেনামি প্রতিষ্ঠানের ভুয়া নিয়োগপত্র দেখিয়ে প্রতারণা করতো। পরবর্তীতে ঘন ঘন অফিস পরিবর্তন করে চাকরি প্রত্যাশীদের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করে আসছিল। মাসের পর মাস অফিসে আসা-যাওয়া করে চাকরি না পেয়ে প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পারে বেশ কয়েক জন। অনেকে প্রদেয় টাকা ফেরত চাইলে তাদেরকে ভয়-ভীতি, হুমকি প্রদর্শন এমনকি মারধরও করতো।

    গত ছয় মাসে ১২ শতাধিক মানুষের কাছ থেকে প্রায় কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় এমআরএম ফোর্সেস সিকিউরিটি। প্রতিষ্ঠানটি আগেও বিভিন্ন নামে রাজধানীসহ দেশের বেশ কয়েকটি স্থানে একই রকমের প্রতারণা করেছিল। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট থানার প্রতারণার অভিযোগে পৃথক দুটি মামলার প্রস্তুতি চলছে।

    আরও পড়ুন