৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
খুলনা জেলা ডিবি পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবা ও গাঁজাসহ গ্রেফতার দুই ভোরের দর্পণের সার্কুলেশন ম্যানেজার ইখতিয়ার হোসেনের মা আর নেই বরিশাল নগরীতে মাদক ও সন্ত্রাসী মনির বাহিনীর হামলায় বাবা ও ছেলে আহত গাজীপুরের অন্তসত্ত্বা নারীর উপর সন্ত্রাসী হামলার মুন্সীগঞ্জে গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ: দুই সন্তানের পর দগ্ধ পিতার মৃত্যু দ.আফ্রিকায় ১ দিনেই ওমিক্রনে আক্রান্ত ১৬ হাজার কুড়িগ্রাম জেলা কৃষক দলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ সড়কের অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে লাল কার্ড নিয়ে আবারও আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা নীলফামারীর জঙ্গি আস্তানা থেকে দুই নারীসহ পাঁচজন আটক চিরিরবন্দর উপজেলায় আসন্ন ৫ম ধাপের ইউপি নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেলেন যারা
  • প্রচ্ছদ
  • অপরাধ >> আইন আদালত >> ছবি ঘর >> টপ নিউজ >> মিডিয়া >> রাজশাহী
  • ভাবিকে মারপিট করার অভিযোগে দেবর কারাগারে
  • ভাবিকে মারপিট করার অভিযোগে দেবর কারাগারে

    জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে ভাবিকে মারপিটের অভিযোগে দেবর কারাগারে যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় চ্যঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

    জানাগেছে,আক্কেলপুর উপজেলার কয়া শোবলা গ্রামে চলাচলের রাস্তা নিয়ে বিরোধের জেরে ভাবিকে মারপিট করার অভিযোগে দেবরকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল শনিবার দিবাগত রাতে দেবর উজ্জ্বলকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আজ রোববার সকালে আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

    থানায় দেওয়া অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, প্রবাসী আবুল কালাম আজাদের স্ত্রী আম্বিয়া খাতুন তার মেয়েকে নিয়ে বাড়িতে একা থাকেন। বাড়ির চলাচলের একটি রাস্তা নিয়ে আম্বিয়ার সঙ্গে দেবর উজ্জ্বল হোসেন ও আব্দুর রাজ্জাকের বিরোধ চলে আসছিল। একপর্যায়ে গত বুধবার আম্বিয়ার বাড়িতে যাওয়ার রাস্তায় মাটি কেটে গর্ত করতে থাকেন দেবর উজ্জ্বল। তখন আম্বিয়া বাধা দিলে উজ্জ্বল ও আব্দুর রাজ্জাকসহ তাদের স্ত্রীরা আম্বিয়াকে বেধড়ক মারপিট করেন। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আম্বিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। এ ঘটনায় আম্বিয়া থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে দেবর উজ্জ্বল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

    আম্বিয়া খাতুন বলেন, আমার স্বামী বাড়িতে না থাকায় দেবর উজ্জ্বল আমাকে বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। বিষয়টি নিয়ে এর আগে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে অভিযোগ দিয়েছিলাম। পরে বিষয়টি মিমাংসা করেছিলাম শান্তির জন্য। কিন্তু ওই দিন আমার বাড়ির রাস্তায় তারা মাটি কাটছিল। আমি বাধা দেওয়ায় তারা আমাকে মেরে পরনের কাপড় ছিঁড়ে ফেলেছিল। তাই থানায় অভিযোগ দিয়েছি।’
    উজ্জ্বল হোসেন বলেন, আমি কখনোই ভাবির গায়ে হাত তুলিনি। তিনি সব মিথ্যা কথা বলেছেন।

    উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্রেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রুহুল আমিন বলেন, আম্বিয়ার শরীরে আঘাতের চিহ্ন ছিল। চিকিৎসায় তিনি এখন সুস্থ হয়েছেন।

    আক্কেলপুর থানার ওসি সাইদুর রহমান বলেন, মারামারির ঘটনায় উজ্জ্বলকে গ্রেপ্তার করা হয়। আজ তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

    আরও পড়ুন