৮ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
প্রধানমন্ত্রী ‘নেতা মোদের শেখ মুজিব’ গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন করলেন ৫ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ইমনকে ছেড়ে দিয়েছে র‍্যাব এ বছর ‘বেগম রোকেয়া’ পদক পাচ্ছেন ৫ নারী নির্বাচিত একজন জনপ্রতিনিধিকে চাইলেই সরিয়ে দেয়া যায় না : হাছান মাহমুদ ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন মুরাদ হাসান পদত্যাগের পর এবার মুরাদের বিরুদ্ধে দলীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে : হানিফ মিয়ানমারে রোহিঙ্গারা ফেসবুকের বিরুদ্ধে ১৫০ বিলিয়ন ডলারের ক্ষতিপূরণ মামলা সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগজি হত্যায় জড়িত সন্দেহভাজন একজনকে প্যারিসে গ্রেপ্তার অন্তঃসত্ত্বা বড় বোনকে শিরশ্ছেদ করে হত্যা লাকসাম বৈরী আবহাওয়া টানা বৃষ্টিতে থমকে গেছে জনজীবন
  • প্রচ্ছদ
  • অন্যান্য >> খুলনা >> ছবি ঘর >> টপ নিউজ >> দেশজুড়ে
  • মণিরামপুর পৌর এলাকায় বেওয়ারিশ কুকুরের উৎপাত বৃদ্ধি আতংকে পৌরবাসি
  • মণিরামপুর পৌর এলাকায় বেওয়ারিশ কুকুরের উৎপাত বৃদ্ধি আতংকে পৌরবাসি

    নূরুল হক, মণিরামপুর প্রতিনিধি: মণিরামপুর পৌর এলাকায় বেওয়ারিশ কুকুরের উৎপাত বৃদ্ধি পেয়েছে। বেওয়ারিশ কুকুরের আতঙ্কে অসহায় সাধারণ মানুষ। পৌর শহরের বিভিন্ন অলি-গলি, রাস্তায় দল বেঁধে উপদ্রব চালাচ্ছে এসব বেওয়ারিশ কুকুর। পৌরবাসীরা এদের ভয়ে আতঙ্কগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন। বিশেষ করে স্কুল-মাদরাসা পড়ুয়া কোমলমতি ছেলে-মেয়েদের নিয়ে দুশ্চিন্তায় দিন কাটাতে হচ্ছে অভিভাবকদের। এসব বেওয়ারিশ কুকুর সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত দল বেঁধে পৌর শহরের বিভিন্ন অলি গলি দাপিয়ে বেড়ালেও দেখার কেউ নেই। ফলে জনগণের মাঝে আতঙ্কের মাত্রা অনেকটা বৃদ্ধি পেয়েছে।

    কুকুরের সংখ্যা বেড়ে গেলে সাধারণত পৌর কর্তৃপক্ষ তা নিধন করত। কিন্তু অমানবিক হওয়ায় উচ্চ আদালতের নির্দেশে ২০১২ সাল থেকে সারা দেশে কুকুর নিধন বন্ধ আছে।

    পৌরসভার এলাকার নাগরিক আতিয়ার রহমান জানান, শহরের বিভিন্ন অলি-গলি, রাস্তায় দল বেঁধে বেওয়ারিশ কুকুরের মিছিল দৌড়া-দৌড়ি, কামড়া-কামড়ি ও উপদ্রব চরম আকার ধারণ করেছে। ফলে আমাদের সন্তানেরা স্কুল-কলেজে যাবার সময় চরম আতংকের মধ্যে থাকে। পৌরবাসি হিসেবে আমি যন্ত্রনা থেকে মুক্তি চাই।

    সরেজমিন শুক্রবার পৌর শহরের দোলখোলা মোড় এলাকায় বেলা সাড়ে ১১টায় দেখা যায়-২২/২৩টি কুকুর সঙ্গবদ্ধভাবে রাস্তার মাঝে জটলা করছে। মুলত: এ সমস্ত বেওয়ারিশ কুকুর গুলো পথচারীকে একা পেলে ঘেউ ঘেউ করে উঠে। অনেক স্কুলগামী ছাত্রছাত্রী ভয়ে একা স্কুল যাওয়া ছেড়ে দিয়েছে। পথচারীরা একা রাতে এসব রাস্তা দিয়ে পথ চলতে ভয় পায়। এ ছাড়া শহরের গরুহাটা মোড়, থানা সংলগ্ন মাছ বাজার ও মাংসের বাজার এলাকা, দূর্গাপুর মোড়, দক্ষিন মাথা বাসষ্টান্ড এলাকা, পাইকারী কাঁচাবাজার, উপজেলা মোড়, কেন্দ্রীয় মসজিদ সংলগ্ন পাবলিক লাইব্রেরি মোড় সহ বিভিন্ন স্থানে এসব কুকুরের অবাধ বিচরণ ক্ষেত্র।

    এ বিষয়ে জানতে চাইলে পৌর সভার সদর ৩নং-(মণিরামপুর) ওয়ার্ডের কমিশনার বাবুলাল চৌধুরী বলেন, বিষয়টি ইতোমধ্যে আমার নজরের এসেছে। এ ব্যাপারে পৌর মেয়রসহ সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনা করে সমাধান করার চেষ্টা করবো।

    এ ব্যাপারে মেয়র অধ্যক্ষ আলহাজ্জ্ব কাজী মাহমুদুল হাসান বলেন, পৌরসভার পক্ষ থেকে প্রতি বছরই বেওয়ারিশ কুকুর নিধন করা হত। কিন্তু মাননীয় হাইকোর্ট কুকুর না মারার জন্য একটি রুল জারি করার ফলে কুকুর মারা বন্ধ হয়ে গেছে। তারপরও আমরা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছি। পৌরবাসির দূরাবস্থার কথা চিন্তা করে যথাযথ কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে খুব দ্রæতই ভিন্ন কৌশল গ্রহণ করা হবে।

    আরও পড়ুন