৬ই ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
খুলনা জেলা ডিবি পুলিশের বিশেষ অভিযানে ইয়াবা ও গাঁজাসহ গ্রেফতার দুই ভোরের দর্পণের সার্কুলেশন ম্যানেজার ইখতিয়ার হোসেনের মা আর নেই বরিশাল নগরীতে মাদক ও সন্ত্রাসী মনির বাহিনীর হামলায় বাবা ও ছেলে আহত গাজীপুরের অন্তসত্ত্বা নারীর উপর সন্ত্রাসী হামলার মুন্সীগঞ্জে গ্যাস লিকেজ থেকে বিস্ফোরণ: দুই সন্তানের পর দগ্ধ পিতার মৃত্যু দ.আফ্রিকায় ১ দিনেই ওমিক্রনে আক্রান্ত ১৬ হাজার কুড়িগ্রাম জেলা কৃষক দলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ সড়কের অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে লাল কার্ড নিয়ে আবারও আন্দোলনে নেমেছেন শিক্ষার্থীরা নীলফামারীর জঙ্গি আস্তানা থেকে দুই নারীসহ পাঁচজন আটক চিরিরবন্দর উপজেলায় আসন্ন ৫ম ধাপের ইউপি নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেলেন যারা
  • প্রচ্ছদ
  • অপরাধ >> আইন আদালত >> ছবি ঘর >> টপ নিউজ >> দেশজুড়ে >> রংপুর
  • গাইবান্ধায় কোটি টাকা সমমূল্যে ৬টি তক্ষক উদ্ধার, আটক ৪
  • গাইবান্ধায় কোটি টাকা সমমূল্যে ৬টি তক্ষক উদ্ধার, আটক ৪

    গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধার পলাশবাড়ি উপজেলার বিশ্রামগাছী গ্রাম থেকে বিলুপ্ত প্রায় ছয়টি বন্যপ্রাণী তক্ষক উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় প্রতারক চক্রের চার সদস্যকে আটক করেছে র‍্যাব-১৩ এর সদস্যরা। উদ্ধার করা তক্ষকগুলোর আনুমানিক বাজার মুল্য এক কোটি ২০ লাখ টাকা।

    আজ বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব তথ্য জানান র‍্যাব-১৩ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাহমুদ বশির আহমেদ।

    আটককৃতরা হলো, শাহজাহান মিয়া (৪০), ওসমান গণি (৪০), জাকির হোসেন (২৬) ও সাহাবুল মিয়া (৩৫)। এদের সকলের বাড়ি গাইবান্ধা জেলার বিভিন্ন উপজেলায়।

    সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার ভোর রাতে গোপন সংবাদ পেয়ে পলাশবাড়ি উপজেলার বিশ্রামগাছী গ্রামে অভিযান চালানো হয়। এ সময় একটি প্রতারক চক্রের চার সদস্যকে আটক করা হয়। পরে আটকদের দেয়া তথ্যে গোপন জায়গায় লুকিয়ে রাখা ৬টি বিলুপ্ত প্রায় তক্ষক উদ্ধার করা হয়। তবে অভিযানের সময় চক্রের ৬-৭ হন সহযোগী পালিয়ে যায়। উদ্ধার করা তক্ষকগুলোর বাজার মূল্য ১ কোটি ২০ লাখ টাকা বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়।

    এ বিষয়ে জানতে চাইলে র‍্যাব-১৩’র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মাহমুদ বশির আহমেদ জানান, বিলুপ্ত প্রায় তক্ষকগুলো পাচারের উদ্দেশ্যে সংগ্রহ করেছিলো চক্রটি। আটক চক্রের চার সদস্যকে পলাশবাড়ি থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ আইন ও প্রতারণার অভিযোগে মামলা দায়ের হয়েছে।

    উদ্ধারকৃত তক্ষকগুলো বন বিভাগের কাছে হস্তান্তরের প্রক্রিয়া চলছে বলেও জানান তিনি।

    আরও পড়ুন