১৭ই জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা ২৭টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর আগামী পাঁচ বছরের জন্য যারা নেতৃত্ব দিবেন নাসিক নির্বাচনে তৃতীয় বারের মত আইভী জয়ী নাসিক নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শেষ চলছে গণনা গভীর রাতে শীতার্ত অসহায় মানুষের পাশে সাপাহার থানার ওসি চিরিরবন্দরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের করোনা ভ্যাকসিন ১ম ডোজের টিকা প্রদান চিরিরবন্দরে শ‍্যামলী পরিবহন- অটো মুখোমুখি সংঘর্ষে, নিহত-২ আহত ১ ইভিএমের মাধ্যমে ভোট গ্রহন চলছে, ভোটারদের উপস্থিতি কম অমিক্রন প্রতিরোধে বেনাপোল ইমিগ্রেশন উদাসীন ! “৮ মাসের শিশু” অপহরণের ৭২ ঘন্টার মধ্যে ঢাকার উত্তরা থেকে উদ্ধার
  • প্রচ্ছদ
  • অপরাধ >> আইন আদালত >> আওয়ামীলীগ >> ছবি ঘর >> টপ নিউজ >> ঢাকা >> দেশজুড়ে >> রাজনীতি
  • সামাজিক যোগাযোগে ভিডিও ভাইরাল,আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে সবুজবাগ থানা মামলা
  • সামাজিক যোগাযোগে ভিডিও ভাইরাল,আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে সবুজবাগ থানা মামলা

    সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপত্তিকর ভিডিও ভাইরালের পর শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) ঢাকার সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর চিত্ত রঞ্জন দাসের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এক ভুক্তভোগী নারী।

    ডিএমপির সবুজবাগ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলাটি করেছেন ওই নারী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভিডিওটি ইতিমধ্যে ভাইরাল হওয়ার বিভিন্ন অঙ্গণে নানা আলোচনা চলছে।

    মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে সবুজবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মু. মুরাদুল ইসলাম বলেন, একজন নারীর একটি আপত্তিকর ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী নারী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা করেছেন। মামলায় আসামি করা করেছেন দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর চিত্ত রঞ্জন দাসকে। এ বিষয়ে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

    ভাইরাল হওয়া ওইভিডিওতে দেখা যায়, এক তরুণীকে নিজের দিকে ডাকছেন চিত্ত রঞ্জন দাস। তরুণী যেতে চাইছিলেন না। এক পর্যায়ে ওই তরুণী কাছে গেলে তিনি তাকে টেনে বারবার জড়িয়ে ধরছেন।

    ওই ঘটনার ভিডিওটি সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।

    সবুজবাগ থানা আওয়ামী লীগের নেতা জামিরুল ইসলাম বলেন, চিত্ত রঞ্জন দাসের মতো একজন দায়িত্বশীল প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা ও কাউন্সিলরের কাছ থেকে জনগণ এটা প্রত্যাশা করে না। ভিডিওটি দেখার পর থেকে আমি চরম ক্ষুব্ধ ও মর্মাহত।

    এর আগে শুক্রবার (১০ সেপ্টেম্বর) রাতে আপত্তিকর ভিডিওটি প্রকাশ হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। পরে ভিডিওটি মুহূর্তেই ভাইরাল হয়।

    এ বিষয়ে শনিবার চিত্ত রঞ্জন দাসের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, আমি সেখানে আপত্তিকর কিছুই করিনি এটি কোনো আপত্তিকর ভিডিও নয়। আমরা দু’জনে নাটকের জন্য রিহার্সেল করেছিলাম। কেউ ষড়যন্ত্র করে ভিডিওটি ফেসবুকে ছেড়ে বিভ্রান্ত তৈরি করছে।

    আরও পড়ুন