২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৫ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
ইভ্যালির মালিকরা কারাগারে, তহবিল নেই, ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানটির ভবিষ্যৎ কী? দেড় বছর বন্ধ থাকায় অনেক শিক্ষার্থীই আসছে না স্কুলে বিএনপি খালেদা জিয়ার চিকিৎসা দলটির নেতাকর্মীরা চান কিনা সন্দেহ প্রকাশ : আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বাগেরহাট ইউনিয়নে সব প্রার্থী বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়লাভ সাবা করিমের ভবিষ্যৎবাণী রোহিঙ্গা ক্যাম্প থেকে বন্যহাতির মরদেহ উদ্ধার নিলামে উঠছে রবি ঠাকুরের আঁকা বিখ্যাত চিত্রকর্ম ‘যুগল’ টুইটারে ফাঁস বিগবস ওটিটি প্ল্যাটফর্মের চ্যাম্পিয়ন দিব্যা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ভ্যাকসিনের আওতায় কতদূর এগোলো? নারায়ণগঞ্জ শহরে দিগুবাবুর বাজারে ৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা
  • প্রচ্ছদ
  • অন্যান্য >> এক্সক্লসিভ >> চট্টগ্রাম
  • লাকসাম-চৌদ্দগ্রাম সড়কের ফেলনা-চাঁন্দিশকরা সীমান্তবর্তী ষ্টীল ব্রীজের ভাঙ্গা, চরম ভোগান্তি
  • লাকসাম-চৌদ্দগ্রাম সড়কের ফেলনা-চাঁন্দিশকরা সীমান্তবর্তী ষ্টীল ব্রীজের ভাঙ্গা, চরম ভোগান্তি

    ডেস্ক রিপোর্টে চৌদ্দগ্রাম সময় ডটকম ঃ
    লাকসাম চৌদ্দগ্রাম সড়কের ফেলনা-চাঁন্দিশকরা সীমান্তবর্তী ষ্টীল ব্রীজের ভাঙ্গা পাটাতনে মঙ্গলবার রাতে এবং বুধবার ভোর ট্রাক আটকে পড়ে যান ৫-৬ ঘন্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে। এসময় ব্যাপক ভোগান্তিতে পড়েন শত শত যাত্রী এবং ভারী যানবাহন। ভোরে আটকে পড়া ট্রাকটি ৫ ঘন্টা পর ভাঙ্গা পাটাতন থেকে বের করা হলেও ব্রীজের ১টি পাটাতন উল্টে পড়ায় অনেক ঝুঁকি নিয়ে ছোট-বড় যানবাহন চলাচল করছে।
    স্থানীয়রা এবং ভুক্তভোগীরা জানায়, ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের পর চৌদ্দগ্রাম উপজেলার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক লাকসাম-চৌদ্দগ্রাম সড়ক। এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ এবং কোটি কোটি টাকার পণ্য নিয়ে ভারী যানবাহন যাতায়াত করে। কিন্তু দীর্ঘ কয়েকবছর ধরে ব্রীজটির কয়েকটি পাটাতন ভেঙ্গে পড়ায় যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। সওজ কর্তৃপক্ষ বিগত সময়ে ২-১ বার ভেঙ্গে পড়া পাটাতন পরিবর্তন করেই দায়িত্ব শেষ করে। পরবর্তীতে কিছুদিন পরই ভারী যানবাহনের চাপে অপর পাটাতন ভেঙ্গে পড়ে।
    প্রত্যক্ষদর্শীরা আরও জানায়, বিগত ২-৩ মাস ধরে প্রায় প্রতিদিনিই ভাঙ্গা পাটাতনে গাড়ি আটক হয়ে ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটছে। এসব দুর্ঘটনায় অনেকে আহতও হয়। ইতোপূর্বে বিভিন্ন সময় জাতীয় এবং স্থানীয় পত্রিকায় সওজ কর্তৃপক্ষের বক্তব্যসহ খবর প্রকাশিত হলেও কর্তৃপক্ষ এখনো ব্রীজটি নির্মাণে কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি।

    আরও পড়ুন