২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ |
শিরোনাম :
আল্লামা সৈয়দ ফজলুল করিম রহ. জীবন ও কর্মশীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত চিরিরবন্দর উপজেলায় নির্বাচিত ও সম্ভাব্য নারীপ্রতিনিধিগণের যোগাযোগ দক্ষতা উন্নয়ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কে বাংলাদেশ রাইটার্স ক্লাব নারায়ণগঞ্জ এর পক্ষে ফুলেল শুভেচ্ছা ভেনেজুয়েলার এক মা নিজে মূত্রপান,সন্তানদের স্তন্যপান করিয়ে মাঝ সমুদ্রে মারা গেলেন ট্রফি জয়ের ঘোষণা দিয়ে বিশ্বকাপে যাব : তামিম ইকবাল বাবা-মায়ের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করলেন বিজয় শেখ হাসিনা ও মনমোহন সিংয়ের আপত্তিকর ছবি পোস্ট করায় সাইবার ট্রাইব্যুনাল ৭ বছরের কারাদণ্ড জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশন মাতালো দক্ষিণ কোরিয়ান বয় ব্যান্ডের বিটিএস রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের চুল্লি থেকে পড়ে একজন মারাত্মক আহত,নিহত ২ রবি চৌধুরী ফেসবুকে ইভার বিয়ের পোস্ট ইভা রহমান এখন ইভা আরমান
  • প্রচ্ছদ
  • Uncategorized >> অপরাধ >> চট্টগ্রাম
  • চৌদ্দগ্রামে সাংবাদিকের প্রাণনাশের হুমকি, জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি
  • চৌদ্দগ্রামে সাংবাদিকের প্রাণনাশের হুমকি, জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে থানায় জিডি

    ষ্টাফ রিপোর্টারঃ
    কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে দৈনিক ইনকিলাব ও এশিয়ান টেলিভিশনের প্রতিনিধি মোঃ আকতারুজ্জামানকে প্রাণনাশের হুমকির ঘটনায় এয়াকুব আলী মজুমদার নামের একজনের বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে। অভিযুক্ত এয়াকুব আলী মজুমদার কনকাপৈত ইউনিয়নের মরকটা গ্রামের মৃত সায়েদুর রহমান ওরফে ভাষানীর ছেলে। মঙ্গলবার সকালে সাধারণ ডায়েরী(নং-৩৩৩) করার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন কর্তব্যরত ডিউটি অফিসার এসআই মনির হোসেন।

    জানা গেছে, উপজেলার কনকাপৈত ইউনিয়নের মরকটা গ্রামে ডাকাতিয়া নদীর অবৈধ দখলের বিষয়ে সোমবার সকালে সাংবাদিক আকতারুজ্জামান সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে বিভিন্ন তথ্য ও ছবি সংগ্রহ করেন। এ সময় তিনি দখলদার আবদুল মান্নান ভুঁইয়া ও এয়াকুব আলী মজুমদারসহ কয়েকজনের সাথে কথা বলে তাদের সাক্ষাতকার গ্রহণ করেন। এরপর তিনি ঘটনাস্থল ত্যাগ করে চলে আসেন। সোমবার সন্ধ্যায় এয়াকুব আলী মজুমদার তাঁর ব্যক্তিগত মোবাইল থেকে সাংবাদিক আকতারুজ্জামানের ব্যক্তিগত মোবাইলে(০১৭১১০৭১৫৪০) ফোন করে হুমকি দিয়ে বলে ‘তুই যদি আমিসহ নদীর অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে নিউজ করিস, তাহলে তোকে কুপিয়ে হত্যা করে লাশ ঘুম করা হবে। আর যদি দশ মিনিট তুই মরকটা গ্রামে থাকতি তাহলে তোকে আমরা প্রাণে মেরে ফেলতাম’। এরপর এয়াকুব আলী মজুমদার আরও অকথ্য ভাষায় গালাগাল করে ফোন কেটে দেন।
    এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, অভিযুক্ত এয়াকুব আলী এরআগেও ডাকাতি ও দাঙ্গা হাঙ্গামার মামলায় দীর্ঘ সময় ধরে জেলে ছিলেন।

    আরও পড়ুন