Breaking News
Home / প্রধান সংবাদ / ফেসবুকে ঝড় তুলেছে ‘প্রজেক্ট তেলাপিয়া’

ফেসবুকে ঝড় তুলেছে ‘প্রজেক্ট তেলাপিয়া’

ইলিশের আদলে তৈরি ‘প্রজেক্ট হিলসা’ রেস্তোরাঁ। মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া ঘাটের অদূরে নির্মিত এই বৃহদাকার রেস্তোরাঁ উদ্বোধনের পর কয়েকদিনের মধ্যেই জমজমাট হয়ে উঠেছে।যদিও মানের তুলনায় খাবারের দাম বেশি ও পরিবেশনে ঢিলেমির অভিযোগ উঠেছে রেস্তোরাঁ বিরুদ্ধে।

এ নিয়ে চরম অসন্তোষ প্রকাশ করে অন্যদের যেতে নিরুৎসাহিত করছেন কেউ কেউ। সার্ভিস চার্জ নিয়েও ক্ষোভ ঝাড়ছেন অনেকে। আর এ সব আলোচনা-সমালোচনায় মুখর হয়ে উঠেছে ফেসবুক। এমন পরিস্থিতিতে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে আরো একটি ছবি। যেখানে দেখা গেছে, তেলাপিয়া মাছের আদলে কয়েকতলা বিশিষ্ট একটি ভবন।

ছবিটির ক্যাপশনে বলা হচ্ছে ‘প্রজেক্ট তেলাপিয়া’। অনেকেই ছবিটি শেয়ার করে বলছেন , ‘প্রজেক্ট হিলসা’কে টেক্কা দিতে এলো রেস্তোরাঁ ‘প্রজেক্ট তেলাপিয়া’। এখানে খাবারের দাম অনেক কম।

‘প্রজেক্ট তেলাপিয়া’দেখে উৎসক নেটনাগরিকরা এর অবস্থান সম্পর্কে জানতে চাইছেন। সেখানে কি তেলাপিয়া মাছের রান্না হচ্ছে কি না, আর রেস্তোরাঁটি কোথায়?

যারাই ছবিটি আপলোড করছেন, তারা এসব প্রশ্নের জবাব জানেন না। অনেকটা হুজুগে অন্যের পোস্ট থেকে কপি করছেন। অনেকে অবশ্য বিষয়টি জেনেও হেয়ালি করছেন। ভবনটির ছবি আপলোড করে লিখছেন, ‘দামে কম মানে ভালো প্রজেক্ট তেলাপিয়া’।

গুগল সার্চ করে যা জানা গেছে, ‘প্রজেক্ট তেলাপিয়া’র অবস্থান বাংলাদেশে নয়। আসলে এ নামে কোনো রেস্তোরাঁই নেই কোথায়। তবে হ্যা, তেলাপিয়া মাছের আদলে তৈরি এ ভবনটির অস্তিত্বের সন্ধান দিয়েছে গুগল।

এটি ভারতের তেলেঙ্গানা রাজ্যের হায়দরাবাদে অবস্থিত। এ ভবনটি দেশটির জাতীয় মৎস্য উন্নয়ন বোর্ডের (এনএফডিএ) প্রধান কার্যালয়।
সংস্থাটির ওয়েবসাইটে ঢু মেরে যা পাওয়া গেছে, হায়দরাবাদ শহরে ২০০৬ সালের ১১ সেপ্টেম্বর মৎস্য উন্নয়ন বোর্ডের ঘোষণা দেওয়া হয়। দেশটির মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীনে স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান হিসেবে ২০০৬ সালে জাতীয় মৎস্য উন্নয়ন বোর্ড গঠন করা হয়।

এরপর এই মাছ আকৃতির ভবন নির্মাণ করে ২০১২ সালের এপ্রিল থেকে একে অফিস হিসেবে ব্যবহার শুরু করে ভারতীয় মৎস্য উন্নয় বোর্ড।মাছের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ও বিলুপ্তপ্রায় মাছ সংরক্ষণে পুরো ভারতজুড়ে কাজ করে সংস্থাটি।

ভবনটি ১০তলা বিশিষ্ট। মাটির সঙ্গে শুধু কিছু পিলার দিয়ে সংযুক্ত। সিঁড়ি ছাড়াও দুটি টানেলে নিচ থেকে ভবনে ওঠার জন্য লিফটের ব্যবস্থা রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানে রয়েছে এমন মাছের আদলে তৈরি ৩০ তলা বিশিষ্ট ফিশারিজ বিল্ডিং। বিখ্যাত মার্কিন স্থাপত্যবিদ আলবার্ট কাহন ১৯২৮ সালে এ ভবন ডিজাইন করেছিলেন। সেই ফিশারিজ বিল্ডিং থেকে অনুপ্রাণিত হয়ে এমন ভবন নির্মাণ করেছে ভারত সরকার।

তবে অনেকের ধারণা ভবনটি ১৯৯২ সালে ফ্রাঙ্ক গ্রেইরির ডিজাইন করা স্পেনের বার্সেলোনাতে অবস্থিত মাছের মনুমেন্ট ‘গোল্ডেন ফিশ’ এর আদলে তৈরি। ভবনটির সুরক্ষায় বেশ কড়াকড়ি আরোপ করেছে এনএফডিএ। এতে দাপ্তরিক কাজ ছাড়া কোনো দর্শনার্থী প্রবেশ করতে পারেন না।

Check Also

বাংলাদেশের বিপক্ষে কে হচ্ছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক?

স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, পেসার প্যাট কামিন্স সহ সাতজন ক্রিকেটার আগেই সরে দাঁড়িয়েছিলেন। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *