Breaking News
Home / আইন ও আদালত / নারায়ণগঞ্জে সর্বাত্মক লকডাউন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ফাঁকা

নারায়ণগঞ্জে সর্বাত্মক লকডাউন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ফাঁকা

কঠোর লকডাউন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক ফাঁকা , কঠোর অবস্থানে প্রশাসন

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় সরকার ঘোষিত দেশব্যাপী কঠোর বিধিনিষেধ পাশাপাশি এবার স্থানীয় প্রশাসন বিভিন্ন এলাকায় বিশেষ বিধিনিষেধ জারি করেছে। এমন পরিস্থিতিতে শুরু হয়েছে কঠোর বিধিনিষেধ।

বৃহস্পতিবার (১ জুলাই) সকাল থেকে শুরু হয়েছে সাত দিনের কঠোর বিধিনিষেধ। সকাল থেকে ঘুরে দেখা যায়, ব্যস্ততম ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অন্য দিনের তুলনায় বেশ ফাঁকা। জরুরী যান ছাড়া সকাল থেকে কোন গণপরিবহন চলতে দেখা যায়নি। এসব রাস্তায় সকাল থেকেই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কঠোর অবস্থানে ছিল। পাশাপাশি র‌্যাব, পুলিশ, বিজিবি ও সেনাবাহিনীর গাড়িও টহল দিতে দেখা গেছে।

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের সাইনবোর্ড এলাকায় সেনাবাহিনীর সদস্যরা রাস্তায় বের হওয়া কয়েকজন মোটরসাইকেল আরোহীকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে দেখা গেছে।

এদিকে সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইল মোড়, মৌচাক বাসস্ট্যান্ড, সানারপাড় বাসস্ট্যান্ড ও সাইনবোর্ডসহ বিভিন্ন এলাকার অলিগলিতে চায়ের দোকানসহ বেশকিছু দোকান খুলতে দেখা গেছে। তবে শপিং মল ও মার্কেট বন্ধ রয়েছে। সব সরকারি, বেসরকারি অফিস বন্ধ থাকায় আগের তুলনায় রাস্তায় মানুষও অনেক কম। শিল্পকারখানা, ব্যাংক, গণমাধ্যমসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের প্রতিষ্ঠানের যানবাহনে অথবা পরিচয়পত্র নিয়ে বের হতে দেখা গেছে।

তোফায়েল হোসেন নামের এক ভূক্তভোগী যাত্রীর অভিযোগ সাইনবোর্ড থেকে কাঁচপুর যেতে এক অটোরিক্সাওয়ালা ৬০ টাকা ভাড়া চেয়েছেন। যা স্বাভাবিকভাবে ছিলো ১০ টাকা।

অন্যদিকে সকাল থেকেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের শিমরাইল মোড়ে কঠোর অবস্থান নিয়েছে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ। পণ্যবাহী পরিবহন ছাড়া অপ্রয়োজনীয়ভাবে বের হওয়া সকল ব্যক্তিগত যান ঘুরিয়ে দিচ্ছে পুলিশ। পাশাপাশি মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে এদেরকে জরিমানাও করছে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট।

এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি (সিদ্ধিরগঞ্জ সার্কেল) রেজা মো. গোলাম মাসুম প্রধান বলেন, সকাল থেকেই আমরা সড়কে অবস্থান করছি। পণ্যবাহী যান ছাড়া সকল যানবাহন চেক করা হচ্ছে। অপ্রয়োজনে বের হওয়া কয়েকজনকে জরিমানা করা হয়েছে এবং প্রাইভেটকার ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে ৬টি চেক পোষ্ট বসানো হয়েছে। জরুরী যান ছাড়া ব্যাক্তিগত গাড়ি ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

Check Also

সরকারি রাস্তা দখল করে মণিরামপুরে পাঁকা দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ

মণিরামপুর প্রতিনিধি: মণিরামপুরের কোনাকোলা বাজারে এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে সরকারি রাস্তার জমি দখলের পর পাকা স্থাপনা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *