Breaking News
Home / জাতীয় / দেবিদ্বারে সাবেক সেনা সদস্যের প্রতারণা ও নির্যাতনের শিকার আপন ভাই

দেবিদ্বারে সাবেক সেনা সদস্যের প্রতারণা ও নির্যাতনের শিকার আপন ভাই

নিজস্ব সংবাদ দাতা:

জমি দখলের জেরে কুমিল্লা দেবিদ্বার উপজেলার ১৬নং মোহনপুর ইউনিয়নের তালতলা গণি মাস্টারের বাড়ীর মৃত আবদুল গফুর মিয়ার ছেলে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা আখতারুজ্জামানের হাতে নির্যাতনের শিকার হয়েছে তারই আপন ছোট ভাই বুদ্ধি প্রতিবন্ধী আসাদুজ্জামান (৪০) ও তার স্ত্রী আয়েশা আক্তার (৩০)। মৃত আব্দুল গফুর মিয়ার চার ছেলে এক মেয়ের মধ্যে আখতারুজ্জামান তৃতীয়। জানা যায়, মৃত আব্দুল গফুর মিয়া জীবিত থাকা অবস্থায় আখতারুজ্জামান (৫০) ও তার বড় ভাই নাইরুজ্জামান (৬০) তার বাবাকে বিভিন্নভাবে ফুঁসলিয়ে তাদের বসত বাড়িটি দুই ভাইয়ের নামে লিখিয়ে নেয়। বিষয়টি জানাজানি হলে আব্দুল গফুর মিয়ার ভাগিনারা সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা তার অন্য দুই সন্তান অর্থাৎ মৃত আবুল কালাম আজাদ এবং আসাদুজ্জামানকে বসতবাড়ির ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য আব্দুল গফুর মিয়া কে অনুরোধ করলে গফুর মিয়া তার মালিকানাধীন অন্য দাগের বিশ শতাংশ জমি ভরাট করে তার দুই ছোট ছেলেকে বাড়ির জায়গা করে দেওয়ার জন্য আখতারুজ্জামানকে দায়িত্ব প্রদান করে এবং মৌখিক ভাবে তাঁর স্থাবর অস্থাবর সমস্ত সম্পত্তি সব ছেলেদেরকে বন্টন করে দেয়। এরপর দীর্ঘদিন যাবৎ তার বাবার বন্টন অনুযায়ী সবাই তাদের সম্পত্তি ভোগ করে আসছিল। কিন্তু হঠাৎ আব্দুল গফুর মিয়া মারা গেলে আখতারুজ্জামান তার বাবার দেওয়া দায়িত্ব অর্থাৎ ছোট দুই ভাইকে ২০শতাংশ জমি ভরাট করে বাড়ি করে দেওয়ার কথা অস্বীকার করে উল্টো নিজের ক্ষমতা ও টাকার শক্তি দেখিয়ে তাদের বাবার মৌখিক বন্টন করা সম্পত্তি অন্য ভাইদের কাছ থেকে জবর দখল করতে গেলে মৃত আব্দুল গফুর মিয়ার ছোট ছেলে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী আসাদুজ্জামান ও তার স্ত্রী বাধা প্রদান করলে গত ০৪/০৪/২০২০ ইং তারিখ আখতারুজ্জামান ও তার ছেলে পাপ্পু এবং তার স্ত্রী পারভিন আক্তার তাদেরকে দেশীয় বিভিন্ন অস্ত্র দ্বারা হামলা করে এই ঘটনায় আসাদুজ্জামান বাদী হয়ে গত ০৬/০৪/২০ দেবিদ্বার থানায় একটি মামলা দায়ের করে মামলা নং ০৩. মামলা চলাকালীন সময়ে দেবিদ্বার উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আবুল কাশেম (ওমানি) সহ আখতারুজ্জামানের ফুফাতো ভাই এবং এলাকবাসী মিলে বিষয়টি পারিবারিক ভাবে সমাধান করার লক্ষ্যে একটি গ্রাম সালিশের আয়োজন করে গ্রাম সালিশিতে আখতারুজ্জামান কে দোষী সাব্যস্ত করে আসাদুজ্জামানের পরিবারের হামলায় আহতদের চিকিৎসা বাবদ ১০হাজার টাকা জরিমানা এবং আখতারুজ্জামানের দখলে থাকা সম্পত্তি ছেড়ে দেওয়ার পর আসাদুজ্জামান তার মামলা উঠিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হলে উভয় পক্ষ তা মেনে নেয়। কিন্তু কিছুদিন পর আখতারুজ্জামান সেই বিচার সালিশি অমান্য করে গোপনে তার ভাইয়ের দখলে থাকা সম্পত্তি তার দুই ছেলের নামে দলিল করে দেয়। আসাদুজ্জামান এর স্ত্রী আয়েশা আক্তার জানান,গত ১৬ জানুয়ারি ২০২১ আক্তারুজ্জামান ও তার স্ত্রী আমার বসত বাড়ির উঠানে আসিয়া মামলা উঠি নেওয়ার জন্য অকথ্য ভাষায় গালমন্দ ও হুমকি দিতে থাকে আমি তার প্রতিবাদ করলে তারা উত্তেজিত হইয়া আমাকে আবারও শারীরিকভাবে নির্যাতন করে। এই ঘটনায় আয়েশা বেগম বাদী হয়ে দেবিদ্বার থানায় আরো একটি অভিযোগ দায়ের করলে আখতারুজ্জামান আরো ক্ষিপ্ত হয়ে আসাদুজ্জামান ও তার পরিবারকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিতে থাকে। এই ঘটনায় দেবিদ্বার থানায় মামলা করতে ব্যর্থ হয়ে আয়েশা বেগম বাদী হয়ে কুমিল্লা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে একটি মামলা দায়ের করেন। অভিযোগের সত্যতার বিষয়ে জানতে চাইলে অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা আক্তারুজ্জামান সাংবাদিকদেরকে জানান, তার ওপর আনীত অভিযোগ সত্য নয়।তার বাবা আবদুল গফুর মিয়ার দেওয়ার দায়িত্ব পালন করার চেষ্টা করেছেন কিন্তু তার বড় ভাই নাইরুজজামান এর কারণে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন এবং তার ছোটভাই আসাদুজ্জামান মামলা উঠিয়ে না নেওয়ার কারণে সে তার জবরদখলকৃত জায়গা ফেরত দিচ্ছে না।

Check Also

শ্বশুরবাড়ির লোকজনের নির্যাতনে বাবার বাড়ি যাওয়ার পথে বাসে সন্তান প্রসব

শ্বশুরবাড়ির লোকজনের নির্যাতনে ঈদের আগের দিন স্বামীর বাড়ি থেকে বাসে নাটোর থেকে রাজধানীর ডেমরায় বাবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *