Breaking News
Home / আইন ও আদালত / চুয়াডাঙ্গায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের রেল বাজার সুরুজ ফার্মেসীতে অভিযান

চুয়াডাঙ্গায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের রেল বাজার সুরুজ ফার্মেসীতে অভিযান

নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেট উদ্ধার:ফার্মেসী মালিক ও ক্রেতাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে কারাদন্ড

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি: (০৫-০৭-২১)

চুয়াডাঙ্গা রেল বাজারের সুরুজ ফার্মেসী থেকে নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেটসহ ফার্মেসী মালিককে প্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে চুয়াডাঙ্গা জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সদস্যরা সেখানে অভিযান চালিয়ে ৪শ’ ৮৩ পিচ নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেট উদ্ধারের পর ফার্মেসী মালিককে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় সেখান থেকে এক ক্রেতাকেও গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতাকৃতদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে বিনাশ্রম কারাদন্ড শেষে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। সাজাপ্রাপ্তরা হলেন, চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের বড় মসজিদপাড়ার মৃত আলতাব শেখের ছেলে মনির হোসেন তোকিম (৫১) ও আলমডাঙ্গা উপজেলার মুন্সিগঞ্জ গড়চাপড়া গ্রামের আব্দুস সাত্তারের ছেলে আজাদুর রহমান বিপ্লব (৪০)।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সুত্রে জানা গেছে, চুয়াডাঙ্গা রেল বাজার রেলগেট সংলগ্ন সুরুজ ফার্মেসীতে দীর্ঘদিন ধরে নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেট বিক্রি করে আসছে। সোমবার সন্ধার দিকে গোপণ সংবাদের ভিত্তিতে চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. শরিয়তউল্লাহ, পরিদর্শক আব্দুল্লাহ আল মামুন, উপপরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে সুরুজ ফার্মেসীতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ফার্মেসীতে অভিযান চালিয়ে ৪শ’ ৮৩ পিচ নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। সেই সাথে গ্রেফতার করা হয় ফার্মেসী মালিক মনির হোসেন ওরফে তোকিমকে। অপরদিকে, সুরুজ ফার্মেসীর সামনে থেকে নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেটসহ আলমডাঙ্গার গড়চাপড়া গ্রামের আজাদুর রহমান বিপ্লবকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় বিপ্লবের কাছ থেকে ৮ পিচ ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতারকৃত বিপ্লব সুরুজ ফার্মেসী থেকে নিষিদ্ধ টাপেন্টাডল ট্যাবলেট কিনে বাড়ি ফিরছিলেন বলে ভ্রাম্যমাণ আদালত সুত্রে জানা গেছে।

পরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাবিবুর রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে সুরুজ ফার্মেসীর মালিক মনির হোসেন ওরফে তোকিমকে ১ বছর ৭ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা্ করেন এবং বিপ্লবকে ১ বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫শ’ টাকা জরিমানা করেন। সাজাপ্রাপ্তদের জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, পৃথক আরেকটি মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে মতিয়ার রহমান নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে চুয়াডাঙ্গা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সদস্যরা। সোমবার বেলা ২ টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার যাদবপুর মাষ্টারপাড়ায় অভিযান চালিয়ে ১৫ গ্রাম গাঁজাসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত মতিয়ার রহমান ওই এলাকার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে। নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাবিবুর রহমানের তেতৃত্বে অভিযানে অংশগ্রহন করেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. শরিয়তউল্লাহ, পরির্দশক আব্দুল্লাহ আল মামুন ও উপ পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদসহ সঙ্গীয় ফোর্স। পরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট হাবিবুর রহমান ভ্রাম্যমাণ আদালতে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মতিয়ার রহমানকে ৫ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫শ’ টাকা জরিমানা করেন। সাজাপ্রাপ্ত মতিয়ার রহমানকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বেঞ্চসহকারী ছিলেন পেশকার আব্দুল লতিফ।

Check Also

সরকারি রাস্তা দখল করে মণিরামপুরে পাঁকা দোকানঘর নির্মাণের অভিযোগ

মণিরামপুর প্রতিনিধি: মণিরামপুরের কোনাকোলা বাজারে এক প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে সরকারি রাস্তার জমি দখলের পর পাকা স্থাপনা …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *