Home / প্রধান সংবাদ / চারিত্রিক মিল‌ই মূলত সব কিছুুর জন্য দায়ী

চারিত্রিক মিল‌ই মূলত সব কিছুুর জন্য দায়ী

পুরো নাম, জেফরি এডওয়ার্ড এপস্টেইন। জেফরি ছিলো একজন আমেরিকান সোশ্যালাইট, ফিনান্সার এবং দোষী সাব্যস্ত যৌন অপরাধী। সে একজন শিক্ষক হিসাবে তাঁর পেশাগত জীবন শুরু করেছিল একদা, তবে তারপরে নিজের ফার্ম গঠনের আগে বিয়ার স্টার্নসে কাজ করে বিভিন্ন ভূমিকায় ব্যাংকিং এবং ফিনান্স সেক্টরে সরে যায় (উইকিপিডিয়া) ।

জেফরির কুৎসিত ভাবনা থেকে জন্ম নেওয়া কুকর্মই তাকে কারাগারে নিয়ে যায় একসময়। অতঃপর জেফরি কারাগারে থাকা অবস্থায় আত্মহত্যা করেছে। এই অকথ্য চরিত্রের আমেরিকার ধনকুবের মালিকের অবসান ঘটলেও এখনও বেঁচে আছে তার সঙ্গী বিল গেটস। গেটস তার ২৭ বছরের বিবাহিত জীবনের ঘটানো অধুনায়।

উইলিয়াম হেনরি গেটস তৃতীয় (জন্ম ২৮শে অক্টোবর, ১৯৫৫) একজন আমেরিকান ব্যবসায়িক মহারথী, সফটওয়্যার বিকাশকারী, বিনিয়োগকারী, লেখক এবং সমাজসেবী। তিনি মাইক্রোসফ্ট কর্পোরেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা। মাইক্রোসফ্টে কর্মজীবন চলাকালীন গেটস চেয়ারম্যান, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও), প্রেসিডেন্ট এবং প্রধান সফটওয়্যার আর্কিটেক্টের পদে ছিলেন এবং মে ২০১৪ অবধি বৃহত্তম স্বতন্ত্র শেয়ারহোল্ডারও ছিলেন। তিনি ১৯৭০ ও ১৯৮০ এর দশকের মাইক্রোকম্পিউটার বিপ্লবের অন্যতম সেরা উদ্যোক্তা এবং পথিকৃৎ (উইকিপিডিয়া) ।

এই উইলিয়াম হেনরি গেটসই বিল গেটস নামে জগৎ খ্যাত। তিনি বিশ্বের একজন অন্যতম ধনী। বিল ব্লুমবার্গ বিলিয়নিয়ার ইনডেক্সের পৃথিবীর চারনম্বর ধনীর স্থানে অবস্থান করে আছেন।

গেলো ৪ঠা মে, গেটস দম্পতি একটি যৌথ বিবৃতিতে লেখেন, ‘আমরা দম্পতি হিসেবে আমাদের সম্পর্কও এগিয়ে নিয়ে যেতে পারব, এই বিশ্বাস আর নেই’।

বিল ও তার স্ত্রী মেলিন্ডা গেটস তাদের বিবাহ বিচ্ছেদ সম্পর্কে টুইটারে বিবৃতি দিয়েছেন, “গত ২৭ বছর ধরে আমরা তিনটি অসাধারণ সন্তানকে বড় করেছি এবং একটি ফাউন্ডেশন তৈরি করেছি যা বিশ্ব জুড়ে মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে কাজ করে। এছাড়াও আমাদের আরও লক্ষ্য রয়েছে। সেগুলো পূরণের জন্য আমরা একসঙ্গে কাজ করবো”।

বিল-মেলিন্ডার দীর্ঘ ২৭ বছরের সংসার জীবনটির এমন দুঃখজনক বিচ্ছেদের কারণ কি?
সারাপৃথিবী অধিকাংশ মানুষের কাছে এই একটি প্রশ্ন এবং যার একমাত্র উত্তর জেফরি এডওয়ার্ড এপস্টেইন।
মেলিন্ডা প্রথম থেকেই জেফরির সাথে বিলের সম্পর্কটা মেনে নিতে পারেন নি। বিলের সাথে জেফরির সম্পর্ক নিয়ে মেলিন্ডার প্রশ্নের উত্তরে বিল সবসময়ই জানিয়েছেন যে অর্থনৈতিক তথা ব্যবসায়িক সম্পর্ক যে উত্তর মেলিন্ডাকে কখনোই সন্তষ্ট করতে পারে নি।

বিল তার ব্যবসার কারণে পরিবারকে সময় দিতে পারতেন না এমন অভিযোগও শোনো গেছে যদিও কিন্তু সেখানেও চলে আসে জেফরির নামটিই। কারণ বিল জেফরিকে সময় দিতো। বিল-জেফরির এই সম্পর্কটি বিশ্ব মিডিয়া যে একেবারেই টের পায় নি বা কখনো কোনো তথ্য‌ই যে প্রকাশ করে নি, একথাটা ঠিক নয় কিন্তু জেফরির মতো একটা বিতর্কিত চরিত্রের সাথে বিলের সম্পর্কটির আরো কারণ হিসেবে বিলের ব্যক্তিগত চরিত্র, রুচি ও কর্মকান্ডের তেমন কোন তথ্যের প্রমান বা প্রকাশ ঘটাতে পারে নি।

তবে কি বিল গেটস এতোই ধুর্তমানব যে পৃথিবীর সব মিডিয়ার চোখে ধুলো দিতে সে সক্ষম? এমন প্রশ্ন আসার কারণ ‘মেলিন্ডা’।
এক বিবৃতিতে মেলিন্ডা জানান যে তারা তাদের দাম্পত্য সম্পর্কটি ভেঙে ফেলার কথা অনেক আগেই ভেবে রেখেছিলেন কিন্তু অপেক্ষা ছিলো ছোট মেয়েটার বড়ো হবার জন্য এবং যথারীতি সেই কথা মতোই কনিষ্ঠ কন্যা ফিবি’র বয়স আঠারো হবার সাথে সাথেই তারা তাদের বৈবাহিক সম্পর্কটি ভেঙে দিয়েছেন।

তবে কি জেফরির মৃত্যুর পরেও জেফরির ছায়া বিলের পিছু ছাড়ে নি বা বিল নিজেই ছাড়েন নি? নয়তো তার মৃত্যুর পরে তো অন্তত তাদের সম্পর্কটার উন্নতি হবার কথা ছিল।

তবে কি জেফরির সাথে বিলের চরিত্রের তথা জীবনের পথে চলার রুচিগত কোনো কঠিন মিল রয়েছে যা মেলিন্ডা কখনো মেনে নিতে পারে নি? আর বিলও কি তার আদর্শগত পরিবর্তন ঘটাতে পারে নি? আর সে কারণেই কি তাদের এক ছাদের নিচে থাকা থেকে বিরত হতে হয়েছে?
বিল ও মেলিন্ডা তাদের কর্মজীবনে দুজনে পাশাপাশি থেকেই ভবিষ্যতেও পথ চলবে বলে জানিয়েছেন যদিও তাদের বিবাহে বিচ্ছেদের সময়। অর্থাৎ তারা শুধু আলাদা হয়ে গেলো এক বিছানায় ঘুমানো থেকে।

কি এমন কারণ ছিল যার জন্য কোনো ভাবেই মেলিন্ডা আর গেটস-এর মতো মানুষের সাথে এক ছাদের নীচে, এক বিছানায় থাকতে রাজি হোলো না?

Check Also

রূপগঞ্জের সেজান জুস কারাখানায় অগ্নিকাণ্ড: লাশের অপেক্ষায় স্বজনরা

রূপগঞ্জ : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সেজান জুসের কারাখানায় অগ্নিকাণ্ডে মৃত ২৪ জনের মরদেহ হস্তান্তর করা হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *